Warning: session_set_cookie_params(): Cannot change session cookie parameters when session is active in /home/kajkhuji/public_html/includes/theme/head.php on line 2
KajKhuji - ৩৯তম বিসিএস (বিশেষ) পরীক্ষা-২০১৮

৩৯তম বিসিএস (বিশেষ) পরীক্ষা-২০১৮

Category: BCS Circular
Posted on: Sunday, April 8, 2018

Share:

৩৯তম বিসিএস (বিশেষ) পরীক্ষা-২০১৮

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের স্বাস্থ্য ক্যাডারের নিম্নোক্ত শূন্য পদসমূহ প্রতিযােগিতামূলক বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে পূরণের জন্য যােগ্য প্রার্থীদের নিকট হতে অনলাইন-এ আবেদনপত্র আহ্বান করা যাচ্ছে 

পদ: 
ক. সহকারী সার্জন (৪৫৪২) :  এম.বি.বি.এস অথবা এর সমমানের 
খ. সহকারী ডেন্টাল সার্জন (২৫০) : বি.ডি.এস অথবা এর সমমানের ডিগ্রি।

বিশেষ নির্দেশাবলি : 
১. ক, নতুন পদসৃষ্টি, পদোন্নতি, কর্মকর্তার অবসর গ্রহণ, মৃত্যু, পদত্যাগ অথবা অপসারণ ইত্যাদি কারণে উল্লিখিত ক্যাডারের শূন্য পদসংখ্যার পরিবর্তন হতে পারে।
খ. বিজ্ঞাপনে উল্লিখিত বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডার পদের জন্য কোনাে প্রার্থীর নির্ধারিত শিক্ষাগত যােগ্যতা না থাকলে উক্ত প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন না। কোনাে প্রার্থী বিদেশ হতে তার অর্জিত কোনাে ডিগ্রিকে উল্লিখিত বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের পদের পার্শ্বে বর্ণিত শিক্ষাগত যােগ্যতার সমমানের বলে দাবি করলে তাকে সে মর্মে বি.এম.ডি.সি কর্তৃক প্রদত্ত ইকুইভ্যালেন্স সনদের সত্যায়িত কপি লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর কমিশন কর্তৃক নির্ধারিত সময়ে BPSC Form-1(applicant's copy) এর সঙ্গে জমা দিতে হবে। ইকুইভ্যালেন্স সনদের জন্য মেডিকেল ডিগ্রিধারীদের বি.এম.ডি.সি-র সঙ্গে যােগাযােগ করতে পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে। উক্ত ইকুইভ্যালেন্স সনদের মূলকপি মৌখিক পরীক্ষার সময় সাক্ষাঙ্কার বাের্ডে অবশ্যই উপস্থাপন করতে হবে, অন্যথায় মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না।
গ. যদি কোনাে প্রার্থী এম.বি.বি.এস/বি.ডি.এস/সমমানের পরীক্ষায় অবতীর্ণ হয়ে থাকেন এবং তার ঐ পরীক্ষার ফলাফল ৩৯তম বিসিএস (বিশেষ) এর আবেদনপত্র দাখিলের শেষ তারিখ পর্যন্ত প্রকাশিত না হয় তাহলে তিনি অনলাইন-এ আবেদনপত্র দাখিল করতে পারবেন, তবে তা সাময়িকভাবে গ্রহণ করা হবে। কেবল সেই প্রার্থীকেই অবতীর্ণ প্রার্থী হিসেবে বিবেচনা করা হবে যার এম.বি.বি.এস/বি.ডি.এস/সমমানের সকল লিখিত পরীক্ষা ৩৯তম (বিশেষ) বিসিএস পরীক্ষার আবেদনপত্র গ্রহণের শেষ তারিখের মধ্যে অর্থাৎ ৩০.০৪.২০১৮ তারিখের মধ্যে সম্পূর্ণরূপে শেষ হয়েছে। এ মর্মে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তৃক প্রদত্ত পরীক্ষা শুরু ও শেষ হওয়ার তারিখ সংবলিত অবতীর্ণ প্রত্যয়নপত্রের সত্যায়িত কপি লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর কমিশন কর্তৃক নির্দেশিত সময়ে BPSC Form-1(applicant's copy) এর হার্ড কপির সঙ্গে প্রার্থী কমিশনে দাখিল করবেন। এম.বি.বি.এস/বি.ডি.এস/সমমানের পরীক্ষা শুরু ও শেষ হওয়ার তারিখ উল্লেখবিহীন কোনাে অবতীর্ণ প্রত্যয়নপত্র গ্রহণযােগ্য হবে না। বিসিএস-এর মৌখিক পরীক্ষার সময় এম.বি.বি.এস/বি.ডি.এস/সমমানের পরীক্ষা পাসের প্রমাণস্বরূপ বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল/সাময়িক সার্টিফিকেট এবং অবতীর্ণ হওয়ার প্রত্যয়নপত্রের মূল কপি কমিশনে অবশ্যই দাখিল করতে হবে। অন্যথায় মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে না এবং প্রার্থিতাও বাতিল বলে গণ্য হবে।
২. অনলাইন-এ আবেদনপত্র (BPSC Form-1) পূরণ এবং পরীক্ষার ফি জমাদান শুরু ও শেষ হওয়ার তারিখ ও সময়:
ক. আবেদনপত্র পূরণ ও ফি জমাদান শুরুর তারিখ ও সময় : ১০.০৪.২০১৮ তারিখ সকাল ১০:০০ টা।
খ. আবেদনপত্র জমাদানের শেষ তারিখ ও সময় : ৩০.০৪.২০১৮ তারিখ সন্ধ্যা ৬:০০ টা।
গ. আবেদনপত্র গ্রহণের শেষ তারিখ : ৩০.০৪.২০১৮ তারিখ সন্ধ্যা ৬:০০ টার মধ্যে কেবল User ID প্রাপ্ত প্রার্থীগণ উক্ত সময়ের পরবর্তী ৭২ ঘণ্টা (অর্থাৎ ০৩.০৫.২০১৮তারিখ সন্ধ্যা ৬:০০ টা পর্যন্ত) sms এর মাধ্যমে (বিজ্ঞাপনের ৯ নম্বর অনুচ্ছেদের নির্দেশনা অনুসরণ করে) ফি জমা দিতে পারবেন। নির্ধারিত তারিখ ও সময়ের পর কোনাে আবেদনপত্র গ্রহণ করা হবে না। বিশেষ দ্রষ্টব্য : Applicant's Copy-তে উল্লিখিত সময় অনুযায়ী (অর্থাৎ ৭২ ঘণ্টা) প্রার্থীদের ফি জমাদান সম্পন্ন করতে হবে। শেষ তারিখ ও সময়ের জন্য অপেক্ষা না করে হাতে যথেষ্ট সময় নিয়ে আবেদনপত্র জমাদান চুড়ান্ত করতে পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে।
৩. বয়সসীমা : ০২ এপ্রিল ২০১৮ খ্রিঃ তারিখে বয়স :
ক. প্রার্থীর বয়স : ২১ হতে ৩২ বছর (জন্মতারিখ সর্বনিম্ন ০২.০৪.১৯৯৭ সর্বোচ্চ ০২.০৪.১৯৮৬ পর্যন্ত)
খ. প্রার্থীর বয়স কম বা বেশি হলে আবেদনপত্র গ্রহণযােগ্য হবে না।
৪. জাতীয়তা :
ক. প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। খ. সরকারের পূর্বানুমতি ব্যতিরেকে কোনাে প্রার্থী কোনাে বিদেশি নাগরিককে বিবাহ করলে বা বিবাহ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হলে তিনি
পরীক্ষায় অংশগ্রহণের অযােগ্য বলে বিবেচিত হবেন। সরকারের অনুমতিপত্র কমিশন কর্তৃক নির্ধারিত সময়ে BPSC Form-1 এর (applicant's copy) সঙ্গে কমিশনের ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয়ে অবশ্যই জমা দিতে হবে।
৫.
ক. লিঙ্গ নির্বিশেষে বিজ্ঞাপিত যােগ্যতাধারী বাংলাদেশের যে কোনাে নাগরিক ৩৯তম বিসিএস (বিশেষ) পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য যােগ্য বিবেচিত হবেন।
খ. প্রজাতন্ত্রের কর্মে অথবা স্থানীয় কর্তৃপক্ষের অধীন চাকরিরত প্রার্থীগণের মধ্যে যােগ্যতাসম্পন্ন এবং নির্ধারিত বয়সের প্রার্থীরা নিয়ােগকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমতিপ্রাপ্ত হলে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।