Warning: session_set_cookie_params(): Cannot change session cookie parameters when session is active in /home/kajkhuji/public_html/includes/theme/head.php on line 2
KajKhuji - চৌম্বকবিদ্যা (Magnetic Science)

চৌম্বকবিদ্যা (Magnetic Science)

Category: Science
Posted on: Sunday, September 17, 2017

Share:

চৌম্বক/ফেরাম্যাগনেটিক পদার্থ: যে সকল পদার্থকে চুম্বক আকর্ষণ করে এবং যাদের চুম্বকে পরিণত করা যায় তাদের চৌম্বক পদার্থ বলে। যেমন-লোহা, লোহার যৌগ, নিকেল, কোবাল্ট।

ডায়াম্যাগনেটিক পদার্থ: যে সকল পদার্থ খুব শক্তিশালী কোন চৌম্বকক্ষেত্রের মধ্য স্থাপন করলে ঐ সকল পদার্থে ক্ষীণ চৌম্বকত্ব দেখা যেতে পারে, তাদের ডায়াম্যাগনেটিক বলে। যেমন- পানি, তামা, বিসমাথ, অ্যান্টিমনি।

প্যারা চৌম্বক: কোন পদার্থের উপর চৌম্বকক্ষেত্র প্রয়োগ করা হলে তার দ্বিপোলগুলো সামান্য পরিমান চুম্বকত্ব প্রদর্শন করে, তাকে প্যারা চৌম্বক পদার্থ বলে।

কুরী বিন্দু: যে তাপমাত্রা একটি চুম্বকের চুম্বকত্ব সম্পূর্ণরূপে বিলুপÍ হয়, তাকে উক্ত চুম্বকের উপাদানের প্রদর্শন কুরী বিন্দু বলে। যেমন-লোহার কুরী বিন্দু ৭৭০º সে:।

চুম্বকঃ যে সকল বস্তুর আকর্ষণ ও দিক নির্দেশক ধর্ম আছে তাদে কে চুম্বক বলে। বিভিন্ন প্রকার চুম্বক হলোঃ

  • প্রাকৃতিক চুম্বকঃ এরা কম শক্তিশালী কিন্তু বেশী স্থায়ী।
  • কৃত্রিম চুম্বকঃ পরীক্ষাগারে চৌম্বক পদার্থকে চুম্বকে পরিণত করা হয়।
  • তড়িৎ চুম্বকঃ যতক্ষণ বিদ্যুৎ প্রবাহ চলে ততক্ষন চুম্বুকত্ব থাকে।
  • অস্থায়ী চুম্বকঃ চৌম্বক ক্ষেত্রের মধ্যে আনলে চুম্বুকে পরিণত হয়।

 চুম্বকের ধর্মঃ

  • চুম্বকের সমমেরু পরস্পরর্কে বিকর্ষণ করে এবং বিপরীতমেরু পরস্পরকে আকর্ষণ করে।
  • চুম্বুক সর্বদা উত্তর ও দক্ষিণমুখী হয়ে থাকে।
  • একটি দন্ডচুম্বককে যত টুকরাই করা হোক না কেন সর্বদা উত্তর মেরু ও দক্ষিণ মেরু সৃষ্টি করে।

চৌম্বক পদার্থঃ একটি চুম্বক যে সকল পদার্থকে আকর্ষণ করে ঐ সকল পদার্থকে চৌম্বক পদার্থ বলে। উদাহরণঃ ইস্পাত , আয়রণ, কপার, কোবাল্ট, নিকেল ইত্যাদি। প্রকারভেদঃ ক, ডায়া চৌম্বক পদার্থ, খ, প্যারা চৌম্বক গ. ফেরোচৌম্বক পদার্থ।

 অচৌম্বক পদার্থঃ একটি চুম্বক যে সকল পদার্থকে আকর্ষণ করে না, ঐ সকল পদার্থকে অচৌম্বক পদার্থ বলে। উদাহরণঃ অ্যালুমিনিয়াম, স্টিল, সোনা ইত্যাদি।

 চুম্বক বল রেখাঃ যে কাল্পনিক রেখা চুম্বকের উত্তর  মেরু থেকে দwÿণ মেরুকে আকর্ষণ করে, তাক চুম্বক বলরেখা বলে।

 কুরি বিন্দু/ কুরি তাপমাত্রাঃ কোন দন্ড চুম্বকের হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করলে বা তাপমাত্রা বাড়িয়ে যে তাপমাত্রায় চুম্বকের চুম্বকত্ব বিনাশ করা যায়, ঐ তাপমাত্রাকে কুরি বিন্দু বা কুরি তাপমাত্রা বলে।

 চুম্বক তথ্যকণিকা

  • লোহার কুরি তাপমাত্রা ৭৭০ প।
  • হাতুড়ি দিয়ে কোন চুম্বক পেটালে সেটি চুম্বকত্ব হারাবে।
  • তাপমাত্রা বাড়ালে চুম্বকত্ব কমবে।
  • নতুন উদ্ভাবিত সব থেকে শক্তিশালি চুম্বক হচ্ছে বোরন আয়রন নিয়োডিমিয়াম।
  • মেরু অঞ্চলে চুম্বকের আকর্ষণ ক্ষমতা সবচেয়ে বেশী।
  • চুম্বকের উত্তর মেরু আসলে পৃথিবীর ভৌগলিক দক্ষিণ মেরু।
  • ক্যাসেটের ফিতার শব্দ সঞ্চিত থাকে চুম্বক শক্তি হিসেবে।
  • রাডারে যে তড়িঃ চৌম্বক তরঙ্গ ব্যবহার করা হয় তার নাম মাইক্রোওয়েভ।
  • প্রাকৃতিক চুম্বককে পূর্বে লেডস্টোন বলা হতো।
  • কম্পিউটারের ফিতায় এবং টেপরেকর্ডারে সিরামিক চুম্বক ব্যবাহৃত হয়।