Warning: session_set_cookie_params(): Cannot change session cookie parameters when session is active in /home/kajkhuji/public_html/includes/theme/head.php on line 2
KajKhuji - বিসিএস লেকচার: বাংলাদেশের নদী

বিসিএস লেকচার: বাংলাদেশের নদী

Category: Bangladesh
Posted on: Wednesday, September 20, 2017

Share:

  • বাংলাদেশের ছোট বড় নদীর সংখ্যা ২৩০টি এর মধ্যে ৫৭টি আন্তর্জাতিক যার ৫৪টির উৎপত্তি ভারতে এবং ৩টি মায়ানমারে।
  • ব্রহ্মপুত্র নদ: বাংলাদেশের বৃহত্তম নদী। কোথায় যমুনা ও পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নামে বিভক্ত হয়েছে – দেয়ানগঞ্জের নিকটে। এ নদের উৎপত্তি হিমালয়ের কৈলাস শৃঙ্গের মানস সরোবরে। উৎপত্তিস্থলে নাম সাংপো।বাংলাদেশে প্রবেশ কওে কুড়িগ্রামের ভিতর দিয়ে। ব্রহ্মপুত্র নদের পুরাতন প্রবাহ ময়মনসিংহের ভেতর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে ভৈরবের নিকটে মেঘনায় পতিত। ভূমিকম্পের কারণে ১৭৮৭ সালে কোন নদীর স্রোত পরিবর্তন হয়ে যমুনা নদী হয় –  পুরাতন ব্রহ্মপুত্র। ব্রহ্মপুত্র নদীর পূর্ব নাম কি –  লৌহিত্য। ধবলা ও দুধকুমার কোন নদেও উপনদী –  ব্রহ্মপুত্র নদের। বাংলাদেশের নদীগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দীর্ঘপথ অতিক্রম করেছে।দৈর্ঘ্যের দিক দিয়ে এই নদীর অবস্থান বিশ্বে২২তম (২৮৫০কিমি)।
  •  
  • পদ্মা: এ নদীর অপর নাম কীর্তিনাশা। পদ্মা নদীর উৎপত্তি স্থল গঙ্গোত্রী হিমবাহ। কুমির সদৃশ ঘড়িয়াল দেখা যায় কোথায় – পদ্মনদীতে। পদ্মা মেঘনার সাথে মিশেছে চাঁদপুরে।পদ্মার শাখা নদী হল ইছামতি, গড়াই, ভৈরব, কুমার, আড়িয়ার খাঁ।পদ্মার একমাত্র উপনদী মহানন্দা।পদ্মা বাংলাদেশের সবচেয়ে নাব্য নদী।
  • যমুনা: নদীর পূর্ব নাম কি – জোনাই। যমুনা নদী পদ্মা নদীতে পতিত হয় গোয়ালন্দে (+ব্রহ্মপুত্র সাথে)
  • মেঘনা: বরাক নদী সুরমা ও কুশিয়ারা নামে বিভক্ত হয়েছে সিরেট জেরার অমলশিদে।পুনরায় মিলিত হয়েছে মারকুলির নিকটে কালনি নামে।মেঘনার উপনদী তিতাস, গোমতী, মনু, বাউলাই।
  • বাংলাদেশের বৃহত্তম নদী সুরমা (৩৯৯কিমি)। কিন্তু সম্প্রতি এক তথ্যমতে মেঘনা।
  • ধলেশ্বরী নদীর শাখা নদী –  বুড়িগঙ্গা
  • বুড়িগঙ্গানদীর পূর্বনাম কি –  দোলাই নদী । ঢাকা শহরকে রক্ষা করার জন্য বুড়িগঙ্গার তীরে ব্যাকল্যান্ড বাঁধ দেয়া হয়। (মোঘল আমলে দেয়া হয় পোস্তাহবাঁধ)
  • হালদা নদীর উৎপত্তি কোথায় – খাগড়াছড়ির বদনাতলী পর্বতমালায়
  • বাংলাদেশের জলসীমায় উৎপত্তি এবং সমাপ্ত নদী সাঙ্গু ও হালদা।
  • বাংলাদেশের কোন নদীর নাম মানুষের নামে রাখা হয়েছে – রূপসা (রূপলাল সাহার নামে)
  • বাংলাদেশের কোন নদীতে জোয়ার ভাটা হয় না – কুমিল­ার গোমতী নদীতে
  • এক কিউসেক বলতে কি বুঝায় – প্রতি সেকেন্ডে এক ঘনফুট পানির প্রবাহ
  • মহিলা নদী কোন জেলায় অবস্থিত – দিনাজপুর
  • কারখানা নদী কোন জেলায় অবস্থিত – পটুয়াখালী
  • তেতুলিয়া নদী কোথায় অবস্থিত – বাউফল, পটুয়াখালী
  • সুন্দরবনের পূর্বে কোন নদী –  বলেশ্বর
  • সুন্দরবনের পশ্চিমে কোন নদী –  রায়মঙ্গল
  • চলনবিলের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত নদীর নাম – আত্রাই
  • বাংলাদেশের সবচেয়ে ছোট নদী – গোবরা (তেঁতুলিয়া), ৪ কিমি।
  • রংপুর জেলার উরে্লকযোগ্য নদনদী – তিস্তা, ঘাঘট, যমুনেশ্বরী, করতোয়া, চিকলী
  • নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট কোথায় – ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার হারুকান্দিতে (১৯৭৭)
  • বর্তমানে ঢাকা কতটি নদী দ্বারা বেষ্টিত – ৫টি (দক্ষিণে বুড়িগঙ্গা,পশ্চিমে তুরাগ, পূর্বে বালু ও শীতলক্ষা, উত্তরে টঙ্গী খাল বা টঙ্গী নদী)
  • জাফরাবাদ জলমহাল যে নামে পরিচিত – পদ্মা-মহানন্দা অভয়াশ্রম
  • বাংলাদেশ মায়ানমার অভিন্ন নদী ৩টি। বাংলাদেম মায়ানমারকে বিভক্তকারী নদীর নাম নাফ নদী। (দৈর্ঘ্য ৫৬কিমি)।মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে নাফ, সাঙ্গু ও সানকা।
  • দক্ষিণ তালপট্টি হাড়িয়াভাঙ্গা নদীর মোহনায় অবস্থিত। (বাংলাদেশ ভারতকে বিভক্তকারী নদী)
  • গঙ্গা-ব্রহ্মপুত্র-মেঘনার সম্মিলিত নদীর অববাহিকার কত শতাংশ বাংলাদেশের অন্তর্গত- ৩৩%।
  • ফারাক্কা বাধঁ বাংলাদেশের সীমান্ত থেকে ১৬.৫ কিমি দূরে অবস্থিত।
  • ভারত-বাংলাদেশের নদী কমিশনের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য   দু’দেশের নদীগুলোর নাব্যতা রক্ষাকরা।
  • গঙ্গা নদীর পানিপ্রবাহ বৃদ্ধিও জন্য বাংলাদেশের প্রস্তাব নেপালে জলাধার নির্মাণ।
  • কুয়কাটা সমুদ্র সৈকতের দৈর্ঘ্য ১৮কিমি।
  • বাংলাদেশের সবচেয়ে খরস্রোতা নদীমেঘনা।
  • মহানন্দা: বাংলাদেশ হতে ভারতে প্রবেশ করা একমাত্র নদী। উপনদী পূণর্ভবা, নাগর, কুলিখ, টাঙ্গন।
  • কর্ণফুলী: নদীর উৎস মিজোরামের লুসাই পাহাড়।
  • নদী পয়স্তি হল নদীর চরে নতুন করে চাষাবাদ করে যারা।
  • বাংলাদেশ ভারত নদী কমিশন গঠিত হয় কবে – ১৯৭২ সালে