বাংলাদেশের ইতিহাস : পাকিস্তান আমল

Category: Bangladesh
Posted on: Wednesday, September 20, 2017

Share:

ভাষা আন্দোলন
১. পাকিস্তানের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন লিয়াকত আলী খান। প্রথম গভর্নর জেনারেল মুহাম্মদ আলী জিন্নাহ। প্রথম প্রেসিডেন্ট ইস্কান্দার মির্জা।
২. পূর্ববঙ্গ প্রদেশের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী হন খাজা নাজিম ইদ্দিন।
৩. পাকিস্তান গণপরিষদের অধিবেশনে প্রথম রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবি জানান কুমিল্লার ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত।
৪. ঐতিহাসিক ১১ দফার প্রথম দাবীটি ছিল-বাংলাকে অন্যতম রাষ্ট্রভাষা
৫. ঐতিহাসিক ২১ দফার প্রথম দাবীটি ছিল-বাংলাকে অন্যতম রাষ্ট্রভাষা
৬. ১৯৫২ সালের তৎকালীন ভাষা আন্দোলন জন্ম দিয়েছিল এক নতুন জাতীয় চেতনার।
৭. পূর্ববঙ্গ জমিদারি দখল ও প্রজাস্বত্ব আইন প্রণীত হয় ১৯৫০ সালে।
৮. সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম কমিটি কবে গঠিত হয়- ৩০ জানুয়ারী’৫২
৯. ২১ ফেব্রুয়ারীকে ‘ভাষা দিবস’ হিসাবে পালনের সিদ্ধান্ত হয়-৩০ জুন’১৯৫২ সালের এক জনসভায়।
১০. ভাষা আন্দোলনের সময় পূর্ব বাংলার প্রাদেশিক গভর্নর ছিলেন্ত ফিরোজ খান নুন
১১. ১৯৫২ সালে (ভাষা আন্দোলনের সময়) পূর্ববঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে ছিলেন্তনুরুল আমিন
১২. ১৯৫৪ সালের ২ এপ্রিল একে ফজলুল হকের (কৃষক প্রজা পাটির প্রতিষ্ঠাতা) নেতৃত্বে যুক্তফ্রন্ট মন্ত্রিসভা গঠিত হয়।তিনি পরে মুখ্যমন্ত্রী হন।
১৩. ভাষা আন্দোলনের ফলে কোন প্রতিষ্ঠানটি সৃষ্টি হয়েছে- বাংলা একাডেমী (১৯৫৫ সালে)
১৪. পূর্ববাংলার নাম পূর্ব পাকিস্তান করা হয় কবে-২৩ মার্চ’ ১৯৫৬ সাল
১৫. ১৯৫৮ সালের আইয়ূব খান তার প্রেসিডেন্ট পদ গ্রহণ যে নামে অভিহিত করেন অক্টোবর বিপ্লব। পাকিস্তানে প্রথম সামরিক আইন জারি করেন ইস্কান্দারমির্জা ১৯৫৮ সালের ৭ অক্টোবর। প্রথম সামরিক আইন প্রশাসক নিযুক্ত হন জেনারেল আইয়ুব খান।
১৬. সোহরাওয়ার্দী মৃত্যুবরণ করেন ১৯৬৩ সালে
১৭. ভাষা আন্দোলনের শহীদদের অনেককেই কবর দেয়া হয় আজিমপুর গোরস্থানে।
১৮. ছয় দফা: ১৯৬৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারী লাহোরে বঙ্গবন্ধু বিরোধীদলগুলোর কনভেনশনে ছয়দফা পেশ করেন। কোন প্রস্তাবের ভিত্তিতে ছয় দফা রচিত হয়-সিমলা
১৯. আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা প্রত্যাহার করা হয় অভিযোগ প্রমানিত না হয়।
২০. ১৯৬৯ সালে কে কে নিহত হন আসাদ, মতিউর রহমান, সার্জেন্ট জহুরুল হক (তিনি আগর তলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামী ছিলেন), ডঃ শামসুজ্জোহা। বর্তমান আসাদগেটের পূর্ব নাম ছিল-আইয়ুব গেইট
২১. পূর্ব বাংলা ভাষা কমিটির সভাপতি ছিলেন মাওলানা আকরাম খাঁ।
২২. পূর্ব পাকিস্তানে জাতীয় পরিষদে মোট আসন সংখ্যা ছিল-১৬৯ টি।
২৩. বঙ্গবন্ধু চারদফা দাবী পেশ করেন ০৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দান (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে)।
২৪. ভাষা আন্দোলন সম্পর্কে সবচেয়ে প্রামান্য ও মৌলিক গ্রনে’র লেখক-ডঃ আহমদ শরীফ
২৫. আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো গানটির সুর অক্ষুন্ন রেখে কতটি ভাষায় অনুদিত হয়েছে-৫টি (উল্লেখযোগ্য জাপানী ও সুইডিশ)
২৬. আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃতি পায় ১৭ নভেম্বর ১৯৯৯ সালে (৩১তম সভায়)
২৭. বায়ান্ন’র মিছিলে-ভাষা আন্দোলনের বীর আবুল বরকতকে নিয়ে নির্মিত প্রামান্যচিত্র

মুক্তিযুদ্ধ
১. স্বাধীন বাংলার পতাকা প্রথম কবে উত্তোলন করা হয়-২ মার্চ’ ৭১, ঢাবি’র কলাভবনে।
২. অপারেশন সার্চলাইট তৈরি করা হয় কবে-১৮ মার্চ’ ৭১
৩. স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র কালুরঘাট এর সমপ্রচার কবে বন্ধ হয়ে যায়- ৩০ মার্চ’৭১
৪. মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে কে ‘চরম পত্র’ নামক একটি কথিকা পাঠ করেন এম আর আখতার মুকুল।
৫. মুক্তিযুদ্ধকালীন কলকাতায় অবসি’ত স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের পরিচালক কে ছিলেন শামসুল হুদা চৌধুরী
৬. মুজিবনগরে আনুষ্ঠানিকভাবে ১৯৭১ সারের ১০ এপ্রিল স্বাধীনতা ঘোষনা করা হয়েছিল।
৭. বাংলাদেশ গণপ্রজাতন্ত্রের ঘোষণা হয়েছিল- ১৭ এপ্রিল’৭১। বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকার গঠিত হয়েছিলমেহেরপুরের বৈদনাথতলার ভবেরপাড়া গ্রামে (বর্তমানে মুজিবনগর)। বাংলাদেশ অস্থায়ী সরকারের ঘোষনা পত্র পাঠ করেন কে- অধ্যাপক ইউসুফ আলী
৮. বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী তাজ উদ্দিন আহমেদ। প্রথম অর্থমন্ত্রী ক্যাপ্টেন মনসুর আলী।
৯. বাংলাদেশের প্রতি প্রথম আনুগত্য প্রকাশকারী পাকিস্তানের কোন হাইকমিশন অফিস প্রধান এম হোসেন আলী , কলকাতাস’: (তিনি ১৮এপ্রিল’৭১ দেশের বাইরে প্রথম জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন)
১০. আনুষ্ঠানিকভাবে ‘মুক্তিফৌজ’ কোথায় গঠিত হয়- তেলিয়াপাড়া, সিলেট
১১. সেক্টর: মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশকে ১১টি সেক্টরে ভাগ করা হয়েছিল।মুক্তিযুদ্ধের সময় মুজিবনগর কোন সেক্টরের অধীন ছিল- ৮ নং, ঢাকা ছিল ২নং সেক্টরের অধীন।১নং সেক্টরের অধীন ছিল চট্টগ্রাম, পার্বত্য চট্টগ্রাম এবং ফেনী নদী পর্যন্ত।১০নং সেক্টরে নিয়মিত কোন সেক্টর কমান্ডার ছিল না।
১২. উপাধি: স্বাধীনতাযুদ্ধে অবদানের জন্য বীর উত্তম উপাদি দেয়া হয়৬৮ জনকে,বীর বিক্রম য়ো হয় ১৭৫ জনকে, বীর প্রতীক দেয়া হয় ৪২৬জনকে। বাংলাদেশের সর্বকনিষ্ঠ খেতাবপ্রপ্ত মুক্তিযোদ্ধা কে?- শহীদুল ইসলাম চৌধুরী (বীর প্রতীক, ১২বছর ছিল)। কোন সাহিত্যিক মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য বীর প্রতীক খেতাব লাভ করেন আবদুস সাত্তার। দুইজনমহিলা বীর প্রতীক ক্যাপ্টেন সেতারা বেগম এবং তারামন বিবি (দীর্ঘ ২৪বছর পর ১৯৯৫ সালে সনাক্ত)। একমাত্র বিদেশী বীর প্রতীক প্রাপ্ত ডব্লিউ এস ওডারল্যান্ড।
১৩. মুজিবনগরের পূর্ব নাম ছিল- ভবের পাড়া। বৈদ্যনাথ তলার নাম মুজিবনগর রাখেন?- তাজউদ্দিন আহমেদ
১৪. মুজিবনগর থেকে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র অনুষ্ঠান সমপ্রচার শুরু হয় ২৫মে, ১৯৭২ সালে।
১৫. মুক্তিযুদ্ধের বিজয়ের দিন বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন এয়ার কমোডর একে খন্দকার।
১৬. যুক্তরাষ্ট্র কবে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয়- ৪এপ্রিল’১৯৭২
১৭. বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দানকারী প্রথম আফ্রিকান দেশ- সেনেগাল
১৮. বাংলাদেশকে কোন আরবদেশ প্রথম স্বীকৃতি দেয়- ইরাক
১৯. বাংলাদেশকে কোন অ-আরব এশিয় মুসলিম দেশ প্রথম স্বীকৃতি দেয়- ইন্দোনেশিয়া
২০. বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দানকারী প্রথম ইউরোপিয়ান দেশ- বেলজিয়াম
২১. ২০০৭ সালের স্বাধীনতা পুরস্কার লাভ করে -বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও ব্র্যাক
২২. মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কর্তৃক প্রকাশিত পত্রিকার নাম কি- মুক্তিবার্তা (সাপ্তাহিক)
২৩. মুক্তিযুদ্ধে কত টি সাংগঠনিক শ্রেণী ছিল- ৩টি (নিয়মিত, সেক্টর ও গেরিলা বাহিনী)
২৪. নিয়াজী কত জন সৈন্য নিয়ে আত্মসমর্পণ করে- ৯৩ হাজার।রেসকোর্স ময়দানে।
২৫. মুক্তিযুদ্ধে প্রথম শত্রু মুক্ত জেলা- যশোর (৬ ডিসেম্বর’৭১
২৬. লোকটি এবং তার দল পাকিস্তানের শত্রু এবার তারা শাসি-এড়াতে পারবে না-বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে কে এই মন্তব্য করেছিল- জেনারেল টিক্কা খান
২৭. বাসন্ত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক কাব্য
২৮. মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস- জলাংগী
২৯. মুক্তিযুদ্ধের প্রামাণ্যচিত্র- স্টপ জেনোসাইড (জহির রায়হান,বাংলাদেশের প্রথম প্রামণ্য চিত্র), লিবারেশন ফাইটার্স (আলমগীর কবির), এ স্টেট ইজ বর্ন (জহির রায়হান),
৩০. মুক্তিযুদ্ধের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র- আগামী (মোরশেদুল ইসলাম), হুলিয়া (তানভির মোকাম্মেল), ধূসর যাত্রা (আবু সায়ীদ), নরসুন্দর (থ্রিলার ছবি, পরিচালক তারেক ও ক্যাথরিন মাসুদ)
৩১. মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র- ওরা ১১জন (চাষী নজরুল ইসলাম), আবার তোরা মানুষ হ’ (খান আতা), ধীরে বহে মেঘনা (আলমগীর কবির), আলোর মিছিল(নারায়ণ ঘোষ মিতা), কলমি লতা (আমজাদ হোসেন), একাত্তরের যীশু (নাসির ইদ্দিন ইউসুফ)
৩২. মুক্তিযুদ্ধের জনসাধারনের সঙগ্রাম ও অভিজ্ঞতা নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র ‘মুক্তির কথা’ এর পরিচালক কে- তারেক মাসুদ ও ক্যাথরিন মাসুদ
৩৩. টিয়ার্স অব ফায়ার- মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক তথ্যচিত্র
৩৪. সমপ্রতি কোন দিনটিকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস ঘোষনা করা হয়েছে- ১ ডিসেম্বর
৩৫. কোন উপজাতি বীর বিক্রম উপাধি লাভ করেছে- উই কে চিং চাকমা (একমাত্র)
৩৬. ৭১ এর যুদ্ধাপরাদীদের বিচারের জন্য কত সালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গণ আদালত অনুষ্ঠিত হয়েছিল- ১৯৯২ সালে
৩৭. ১৯৯৭ সালে সিলেট কোন মহিলা মুক্তিযুদ্ধোর সন্ধান পাওয়া যায়- কাকন বিবি
৩৮. ঢাকা সেনানিবাসস’ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের নাম কি- বিজয় কেতন
৩৯. নরসিংদী জেলার রায়পপুরা থানার রামনগর গ্রামের বর্তমান নাম- মতিউর নগর
৪০. যে বীর শ্রেষ্ঠের নামে ইউনিয়নের নামকরণ করা হয়েছে- ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর
৪১. মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় কবে গঠিত হয়- ২০০১ সালে
৪২. জাগরণের গান কি- মুক্তিযোদ্ধাদের প্রেরণাদানকারী গান সংকলন
৪৩. পূর্ব পাকিস্তান এসেমব্লীতে সন্ত্রাসী ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেছিল শাহেদ আলী।
৪৪. ২৬ মার্চকে স্বাধীনতা দিবস হিসাবে ঘোষনা করা হয় কবে- ৩ অক্টোবর’১৯৮০
৪৫. জাতীয় পতাকা প্রথম উত্তোলন করা হয় ২মার্চ’১৯৭১।
৪৬. সর্বোচ্চ রাষ্টীয় পুরস্কার হিসাবে স্বাধীনতা দিবস’ পুরস্কার চালু করা হয় ১৯৭৭ সালে (১৯৮৪ এবং ২০০৪ সালে কাইকে দেয়া হয়নি)।
৪৭. বিজয় দিবসে ৩১বার তোপধ্বনি দেয়া হয়।
৪৮. কোন বিদেশী সাংবাদিক ১৯৭১ সালের বর্বরতার খবর সর্বপ্রথম বর্হিবিশ্বে প্রচার করে- সাইমনড্রিং।
৪৯. মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের যুবকদের নিয়ে যে বাহিনী গঠিত হয় তার নাম সম্মিলিত প্রয়াস।
৫০. ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে যৌথ সামরিক কমান্ড গঠিত হয় ৩ ডিসেম্বর,৭১।
৫১. যুক্তরাষ্ট্র ৯ ডিসেম্বর বঙ্গোপসাগরের অভিমুখে তাদের সপ্তম নৌবহর পাঠানোর নির্দেশ দেয়।
৫২. মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকারের বিশেষ দূত হিসাবে বহির্বিশ্বে ব্যাপক ভূমিকা পালন করেন বিচার পতি আবু সাঈদ চৌধুরী।
৫৩. বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সর্ব প্রথম শুরু হয় গাজীপুর জেলা থেকে।
৫৪. বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সর্ব প্রথম শত্রুমুক্ত জেলা যশোর।